কুরআন মাজিদের সংরক্ষণ

Preservation

কুরআন মাজিদের সংরক্ষণ

إِنَّا نَحْنُ نَزَّلْنَا الذِّكْرَ وَإِنَّا لَهُ لَحَافِظُونَ (9)

নিশ্চয় আমি (আল্লাহ) কুরআন নাজিল করেছি, আর আমিই তার হেফাজতকারী। (হিজর, ১৫ : ০৯)

وَلَقَدْ يَسَّرْنَا الْقُرْآَنَ لِلذِّكْرِ فَهَلْ مِنْ مُدَّكِرٍ (17)

আর আমি তো কুরআনকে সহজ করে দিয়েছি উপদেশ গ্রহণের জন্য। অতএব কোনো উপদেশ গ্রহণকারী আছে কি? (কামার, ৫৪ : ১৭, ২২, ৩২, ৪০)

যেসব উপায়ের মাধ্যমে আল্লাহ তাআলা কুরআন মাজিদের সংরক্ষণ প্রক্রিয়া নিশ্চিত করেছেন তার মধ্যে একটি হল, তিনি ঈমানদারদের জন্য কুরআন মুখস্থ করাকে সহজ করে দিয়েছেন। বস্তুত কুরআন মাজিদই একমাত্র ধর্মগ্রন্থ যা তার অনুসারীরা মুখস্থ করে থাকে। প্রতিটি মুসলিম সমাজে প্রচুর সংখ্যক ব্যক্তি কুরআন অবতরণের প্রথম দিন থেকে তা সম্পূর্ণরূপে মুখস্থ করে আসছে। পাঁচ বছরের ছোট শিশু থেকে নিয়ে ৫০ বছরের বৃদ্ধ পুরুষ-মহিলা পর্যন্ত আল্লাহ তাআলার কিতাবের প্রতি ভালবাসা ও ভক্তি নিয়ে পুরো কুরআন মুখস্থ করে থাকে। যে ব্যক্তি কুরআন মাজিদ মুখস্থ করেন তাকে ‘হাফিজ’ বলা হয়। এটি একটি বিস্ময়কর ব্যাপার যে, একজন হাফিজ কেবল পুরো কুরআন মাজিদই মুখস্থ করে না, বরং সে

কুরআন মাজিদের সকল যতিচিহ্ন, প্রতিটি শব্দ ও বাক্যের বর্ণসমূহ পর্যন্ত মুখস্থ করে নেয়। মুসলমানরা সারা বিশ্বে রমজান মাসে পুরো কুরআন মাজিদের তেলাওয়াত শ্রবণ করে থাকে।

যাহোক, আল্লাহ তাআলা কুরআন মাজিদ সংরক্ষণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন এবং এভাবে তার অনুসারীদেরকে তা মুখস্থ করার ক্ষমতা দান করেছেন। যে কোনো ধরনের বিকৃতি ও বিচ্যুতি থেকে কুরআন মাজিদের নিরাপদ থাকা এবং তার বিশ্বাসীদের দ্বারা তা মুখস্থ করা মানব জাতির জন্যে একটি

ওপেন চ্যালেঞ্জ।

 

Author: moq@2020@

2 thoughts on “কুরআন মাজিদের সংরক্ষণ

  1. Assalamu Alaikum.
    আপনাদের সাথে কথা বলতে চাই!
    আপনাদের কিছু তথ্য দ্বীন প্রচারের জন্য ব্যাবহার করতে চাই!
    তাই আপনাদের যথাযথ অনুমতি চাচ্ছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.